September 23, 2021, 6:12 pm

বিজ্ঞপ্তি:
সর্বশেষ আপডেট জানতে চোখ রাখুন (www.bdvoice.news) বিডি ভয়েসে। যেকোনো প্রয়োজনে যোগাযোগ  করুন-01715653114 "ধন্যবাদ"
সংবাদ শিরোনাম :
ভোক্তা প্রতারণা বন্ধে কার্যকর উপায় বের করতে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশনকে রাষ্ট্রপতির নির্দেশ ‘অতি জরুরি’ ভিত্তিতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন জোরদারের দাবি প্রধানমন্ত্রীর কৃষি ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় যশোরের পরিমল বিশ্বাসকে শ্রেষ্ঠ পুরষ্কার দিলেন এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী আলিপুর ও মহিপুরে দুটি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের উদ্বোধন অভিনেত্রী শাবানা আজমী দুর্নীতিবাজদের শাস্তি দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে দুদকের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির কলাপাড়ায় প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত মৃৎশিল্পীরা মহিপুরে যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ অধিবেশন যোগ দিতে কাল ঢাকা ত্যাগ করবেন কলাপাড়া রিপোর্টার্স ক্লাবের অর্থ সম্পাদক’র পিতার মৃত্যুতে দোয়া ও আলোচনা সভা

banner728x90

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,৫৪৮,৩২০
সুস্থ
১,৫০৭,৭৮৯
মৃত্যু
২৭,৩৩৭
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
১,১৪৪
সুস্থ
১,৬৫৩
মৃত্যু
২৪
স্পন্সর: একতা হোস্ট
আক্রান্ত

১,৫৪৮,৩২০

সুস্থ

১,৫০৭,৭৮৯

মৃত্যু

২৭,৩৩৭

  • জেলা সমূহের তথ্য
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২,৭১৪
  • বরগুনা ১,০০৮
  • বগুড়া ৯,২৪০
  • চুয়াডাঙ্গা ১,৬১৯
  • ঢাকা ১৫০,৬২৯
  • দিনাজপুর ৪,২৯৫
  • ফেনী ২,১৮০
  • গাইবান্ধা ১,৪০৩
  • গাজীপুর ৬,৬৯৪
  • হবিগঞ্জ ১,৯৩৪
  • যশোর ৪,৫৪২
  • ঝালকাঠি ৮০৪
  • ঝিনাইদহ ২,২৪৫
  • জয়পুরহাট ১,২৫০
  • কুষ্টিয়া ৩,৭০৭
  • লক্ষ্মীপুর ২,২৮৩
  • মাদারিপুর ১,৫৯৯
  • মাগুরা ১,০৩২
  • মানিকগঞ্জ ১,৭১৩
  • মেহেরপুর ৭৩৯
  • মুন্সিগঞ্জ ৪,২৫১
  • নওগাঁ ১,৪৯৯
  • নারায়ণগঞ্জ ৮,২৯০
  • নরসিংদী ২,৭০১
  • নাটোর ১,১৬২
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৮১১
  • নীলফামারী ১,২৮০
  • পঞ্চগড় ৭৫৩
  • রাজবাড়ী ৩,৩৫২
  • রাঙামাটি ১,০৯৮
  • রংপুর ৩,৮০৩
  • শরিয়তপুর ১,৮৫৪
  • শেরপুর ৫৪২
  • সিরাজগঞ্জ ২,৪৮৯
  • সিলেট ৮,৮৩৭
  • বান্দরবান ৮৭১
  • কুমিল্লা ৮,৮০৩
  • নেত্রকোণা ৮১৭
  • ঠাকুরগাঁও ১,৪৪২
  • বাগেরহাট ১,০৩২
  • কিশোরগঞ্জ ৩,৩৪১
  • বরিশাল ৪,৫৭১
  • চট্টগ্রাম ২৮,১১২
  • ভোলা ৯২৬
  • চাঁদপুর ২,৬০০
  • কক্সবাজার ৫,৬০৮
  • ফরিদপুর ৭,৯৮১
  • গোপালগঞ্জ ২,৯২৯
  • জামালপুর ১,৭৫৩
  • খাগড়াছড়ি ৭৭৩
  • খুলনা ৭,০২৭
  • নড়াইল ১,৫১১
  • কুড়িগ্রাম ৯৮৭
  • মৌলভীবাজার ১,৮৫৪
  • লালমনিরহাট ৯৪২
  • ময়মনসিংহ ৪,২৭৮
  • নোয়াখালী ৫,৪৫৫
  • পাবনা ১,৫৪৪
  • টাঙ্গাইল ৩,৬০১
  • পটুয়াখালী ১,৬৬০
  • পিরোজপুর ১,১৪৪
  • সাতক্ষীরা ১,১৪৭
  • সুনামগঞ্জ ২,৪৯৫
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐতিহাসিক টি-টুয়েন্টি সিরিজ জিতলো বাংলাদেশ

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐতিহাসিক টি-টুয়েন্টি সিরিজ জিতলো বাংলাদেশ

খেলাধুলা সংবাদ, বিডি ভয়েস:

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐতিহাসিক টি-টুয়েন্টি সিরিজ জয়ের স্বাদ পেলো  বাংলাদেশ। আজ তৃতীয় ম্যাচে ১০ রানে জিতে অসিদের বিপক্ষে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করে টাইগাররা। এই প্রথমবারের মত অসিদের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক টি-টুয়েন্টি সিরিজ জয় করলো মাহমুদুল্লাহর দল।
পাঁচ ম্যাচের সিরিজ জয়ের পাশাপাশি ৩-০ ব্যবধানে এগিয়েও থাকলো বাংলাদেশ। এই নিয়ে টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটে দ্বিপাক্ষিক লড়াইয়ে অষ্টম সিরিজ জিতলো টাইগাররা। তামিম ইকবাল-মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসকে ছাড়া অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দাপট দেখিয়ে টি-টুয়েন্টি সিরিজ জয় বাংলাদেশের ক্রিকেটে স্মরনীয় অধ্যায় রচিত হলো।
টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১২৭ রান করে বাংলাদেশ। জবাবে ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১১৭ রান করে ম্যাচ হারে অস্ট্রেলিয়া।
দুই ম্যাচ বাকী রেখেই  সিরিজ নিশ্চিতের ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় বাংলাদেশ। বৃষ্টি কারনে এক ঘন্টা ১৫ মিনিট পর খেলা শুরু হয়। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের  ম্যাচে ব্যাট হাতে এবারও ব্যর্থ হয়েছেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার মোহাম্মদ নাইম ও সৌম্য সরকার। ১৩ বল ও দলীয় ৩ রানের মধ্যে বিদায় নেন দু’জনে।
দ্বিতীয় ওভারে নাইমকে ব্যক্তিগত ১ রানে ফেরান অস্ট্রেলিয়ার পেসার জশ হ্যাজেলউড। পরের ওভারে সৌম্যকে ২ রানে আউট করেন অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার এডাম জাম্পা। ১১ বল খেলেছেন সৌম্য।
সিরিজে ৩ ম্যাচে নাইম করেছেন ৪০ রান, আর সৌম্য করেছেন ৪ রান। ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছেন তারা। আগের দুই ম্যাচে উদ্বোধনী জুটিতে তাদের রান ছিলো যথাক্রমে ১৫ ও ৯।
শুরুর ধাক্কাটা সামলে উঠতে অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের বিপক্ষে লড়াই শুরু করেন সাকিব আল হাসান ও অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। শুরুতে সাবধান ছিলেন তারা। ৭ ওভার শেষে ২ উইকেটে ৩২ রান আসে  বাংলাদেশের।
অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়াম পেসার মিচেল মার্শের করা অষ্টম ওভারে সাকিব ২টি ও মাহমুদুল্লাহ ১টি চারে ১৫ রান পায় বাংলাদেশ। তবে নবম ওভারের প্রথম বলে এই জুটিতে ভাঙ্গন ধরে। জাম্পার বলে লং-অফে অ্যাস্টন আগারকে ক্যাচ দিয়ে থামেন সাকিব। ১৭ বলে ৪টি চারে ২৬ রান করেন সাকিব। ৩৬ বলে দলকে ৪৪ রান উপহার দিয়েছিলেন সাকিব-মাহমুদুল্লাহ জুটি।
দলীয় ৪৭ রানে সাকিবের বিদায়ের পর ক্রিজে অধিনায়কের সঙ্গী হন আগের ম্যাচের হিরো আফিফ হোসেন। মারমুখী মেজাজেই শুরু করেছিলেন আফিফ। ১০ম ওভারে আগারকে মিড-উইকেট দিয়ে ছক্কা হাঁকান আফিফ। পরের ওভারে মিডিয়াম পেসার এলিসকে চারও মারেন তিনি। ফলে আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেন আফিফ। কিন্তু ১২তম ওভারের শেষ বলে থামতে হয় তাকে। রান আউটের ফাঁদে পড়ে ১৩ বলে ১৯ রান করা আফিফ। চতুর্থ উইকেটে মাহমুদুল্লাহর সাথে ২২ বলে ২৯ রান যোগ করেন আফিফ।
এরপর শামিম হোসেন ও নুরুল হাসান ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি। ৩ রান করে আউট হন শামিম। জাম্পাকে ছক্কা মারা নুরুলও রান আউট হন। ৫ বলে ১১ রান করেন তিনি। ফলে ১৬তম ওভারে ৯৭ রানে ৬ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।
এ অবস্থায় এক প্রান্ত আগলে, দলের রানের চাকা সচল রেখেছিলেন মাহমুদুল্লাহ। তাকে সঙ্গ দিয়েছেন মাহেদি হাসান। অধিনায়ককে স্ট্রাইক দেয়াই মূল লক্ষ্য ছিলো তার।  ইনিংসের শেষ ওভারে ৫২তম বলে বাউন্ডারির মাধ্যমে হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি।
তবে একই  ওভারের চতুর্থ বলে আউট হন মাহমুদুল্লাহ। ৯৫ ম্যাচের ক্যারিয়ারে পঞ্চমবারের মত হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেয়া মাহমুদুল্লাহ ৫৩ বলে ৫২ রান করেন। ৪টি চার মারেন তিনি। তার ব্যাটিং দৃঢ়তায় ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১২৭ রানের মামুলি সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ।
বাংলাদেশের ইনিংসের শেষ ওভারের তিন বলে তিন উইকেট তুলে নিয়ে অভিষেক ম্যাচেই হ্যাট্টিকের স্বাদ পান  মিডিয়াম পেসার নাথান এলিস। মাহমুদুল্লাহ, মুস্তাফিজুর ও মাহেদি হাসানকে শিকার করেন এলিস। টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটে ১৭তম, আর তৃতীয় অস্ট্রেলিয়ান হিসেবে হ্যাট্টিক করলেন এলিস। ৪ ওভারে ৩৪ রানে ৩ উইকেট নেন এলিস। এছাড়া জশ হ্যাজেলউড ও জাম্পা ২টি করে উইকেট নেন।
জয়ের জন্য ১২৮ রানের টার্গেট পায় অস্ট্রেলিয়া। প্রথমবারের মত খেলতে নামা বেন ম্যাকডারমটের সাথে ইনিংস শুরু করেন অধিনায়ক অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড। দ্বিতীয় ওভারে ওয়েডকে বিদায় দেন প্রথম ম্যাচের  সেরা খেলোয়াড় বাংলাদেশের বাঁ-হাতি স্পিনার নাসুম আহমেদ। ১ রান করেন ওয়েড।
দলীয় ৮ রানে প্রথম উইকেট পতনের পর শক্ত হাতে দলের হাল ধরেন ম্যাকডারমট ও তিন নম্বরে নামা মিচেল মার্শ। উইকেট ধরে খেলে ১০ ওভার শেষে অসিদের রান ৫৪ রানে নিয়ে যান ম্যাকডারমট ও মার্শ।
১৩তম ওভারের প্রথম বলে এই জুটি ভাঙ্গার সুযোগ তৈরি করেছিলেন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর। কিন্তু ম্যাকডারমটের ক্যাচ ফেলেন শরিফুল। তবে ১৪তম ওভারে ম্যাকডারমটকে থামান সাকিব। নিজের শেষ ওভারে এসে উইকেটের দেখা পান সাকিব। ২টি ছক্কায় ৪১ বলে ৩৫ রান করেন ম্যাকডারমট। দ্বিতীয় উইকেটে ৭১ বলে ৬৩ রানের জুটি গড়ে অস্ট্রেলিয়াকে লড়াইয়ে রাখেন ম্যাকডারমট-মার্শ।
চার নম্বরে মইসেস হেনরিক্সকে ২ রানের বেশি করতে দেননি বাঁ-হাতি পেসার শরিফুল ইসলাম। হেনরিক্স থামলেও, এক প্রান্ত ধরে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন ইনফর্ম মার্শ। ২৮তম ওভারের টি-টুয়েন্টি ক্যারিয়ারের চতুর্থ হাফ-সেঞ্চুরির দেখাও পান তিনি। বল খেলেন ৪৫টি।
১৮তম ওভারের প্রথম বলে উইকেট ছেড়ে মারতে গিয়ে আকাশে বল তুলে দেন মার্শ। সেটি ধরতে ভুল করেননি নাইম। নিজের শেষ ওভারে এসে দ্বিতীয় উইকেটে দেখা পান শরিফুল। অবশ্য ঐ ওভারের চতুর্থ ও শেষ বলে বাউন্ডারি হজম করতে হয় তাকে। এতে শেষ ১২ বলে জয়ের জন্য ২৩ রান দরকার পড়ে অস্ট্রেলিয়ার।
১৯তম ওভারে মাত্র ১ রান দেন মুস্তাফিজ। ফলে শেষ ওভারে জিততে ২২ রান প্রয়োজন পড়ে অসিদের। মাহেদির করা শেষ ওভারের প্রথম বলে লং-অন দিয়ে ছক্কা মারেন অ্যালেক্স ক্যারি। দ্বিতীয় বলে ১ রান নেন ক্যারি। তৃতীয় বল ডট হয়। চতুর্থ বলে নো-বলের সাথে ১ রান দেন মাহেদি। ফ্রি-হিটের পরের বল থেকে ১ রান নিতে পারেন ক্যারি। আর শেষ দুই বলে ১ রানের বেশি না দিলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেন মাহেদিই। পুরো ২০ ওভার ব্যাট করে ৪ উইকেটে ১১৭ রান করে অস্ট্রেলিয়া। ক্যারি ২০ ও ক্রিস্টিয়ান ৭ রানে অপরাজিত থাকেন।
বাংলাদেশের শরিফুল ২টি ও নাসুম-সাকিব ১টি করে উইকেট নেন। উইকেট না পেলেও ৪ ওভারে মাত্র ৯ রান দেন অস্ট্রেলিয়ার কাছে আতঙ্কিত বোলার মুস্তাফিজ।
আগামীকাল এই ভেন্যুতেই অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের চতুর্থ টি-টুয়েন্টি।
স্কোর কার্ড :
বাংলাদেশ ইনিংস :
মোহাম্মদ নাইম ক ওয়েড ব হ্যাজেলউড ১
সৌম্য সরকার এলবিডব্লু ব জাম্পা ২
সাকিব আল হাসান ক আগার ব জাম্পা ২৬
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ বোল্ড ব এলিস ৫২
আফিফ হোসেন রান আউট (ক্যারি) ১৯
শামিম হোসেন ক ম্যাকডরমেট ব হ্যাজেলউড ৩
নুরুল হাসান রান আউট (হেনরিক্স) ১১
মাহেদি হাসান ক আগার ব এলিস ৬
মুস্তাফিজুর রহমান ক মার্শ ব এলিস ০
শরিফুল ইসলাম অপরাজিত ০
অতিরিক্ত (লে বা-৪, নো-১, ও-২) ৭
মোট (২০ ওভার, ৯ উইকেট) ১২৭
উইকেট পতন : ১/৩ (নাইম), ২/৩ (সৌম্য), ৩/৪৭ (সাকিব), ৪/৭৬ (আফিফ), ৫/৮১ (শামিম), ৬/৯৭ (নুরুল), ৭/১২৭ (মাহমুদুল্লাহ), ৮/১২৭ (মুস্তাফিজ), ৯/১২৭ (মাহেদি)।
অস্ট্রেলিয়া বোলিং :
অ্যাস্টন টার্নার : ১-০-২-০,
জশ হ্যাজেলউড : ৪-০-১৬-২,
এডাম জাম্পা : ৪-০-২৪-২ (ও-১),
অ্যাস্টন আগার : ৪-০-২৩-০ (ও-১),
নাথান এলিস : ৪-০-৩৪-৩,
মিচেল মার্শ : ১-০-১৫-০
ডেন ক্রিস্টিয়ান : ২-০-৯-০।
অস্ট্রেলিয়া ইনিংস :
বেন ম্যাকডারমট বোল্ড ব সাকিব ৩৫
ম্যাথু ওয়েড ক শরিফুল ব নাসুম ১
মিচেল মার্শ ক নাইম ব শরিফুল ৫১
মইসেস হেনরিক্স ক শামিম ব শরিফুল ২
অ্যালেক্স ক্যারি অপরাজিত ২০
ডেন ক্রিস্টিয়ান অপরাজিত ৭
অতিরিক্ত (নো ব-১) ১
মোট (২০ ওভার, ৪ উইকেট) ১১৭
উইকেট পতন : ১/৮ (ওয়েড), ২/৭১ (ম্যাকডারমট), ৩/৭৪ (হেনরিক্স), ৪/৯৪ (মার্শ)।
বাংলাদেশ বোলিং :
মাহেদি হাসান : ৩-০-২৯-০ (নো-১),
নাসুম আহমেদ : ৪-১-১৯-১,
সাকিব আল হাসান : ৪-০-২২-১,
মুস্তাফিজুর রহমান : ৪-০-৯-০,
শরিফুল ইসলাম : ৪-০-২৯-২,
সৌম্য সরকার : ১-০-৯-০।
ফল : বাংলাদেশ ১০ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : মাহমুদুল্লাহ (বাংলাদেশ)।
সিরিজ : পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ।

আপনার মতামত এখানে লিখুন




banner728x90

banner728x90




banner728x90

© বিডি ভয়েস নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed BY Next Tech
Translate »
error: Content is protected !!